Rahima Puspo

0
1399

কিছুদিন পরে দিতে চেয়েছিলাম ছবি কিন্তু আজই দিয়ে দিলাম, কারন আমার পিক দেখে আমার যেসকল বোনদের সি- সেকশন হয়েছে আর থাইরয়েড আছে সাথে ওজনও বেড়েছে অনেক, তাদের মোটিভেশন বাড়বে।
এবার আমার গল্প বলি….
যে মাসে কন্সিভ করি ওজন ছিল ৫২ কেজি, নয় মাসে দারায় ৮৬ কেজিতে।
ছেলে হওয়ার পর ওজন ৮২ কেজি।
সবাই বলতো তোমার পেট এত বড় কেন? পেটে কি আরেকটা বাচ্চা আছে? তুমি তো হাতি হইছো, একদিন ঘুড়তে যাব বান্ধবীদের সাথে, এক বড় আপু বলে উঠলো তোরতো যায়গা হবে না রিক্সায়, কেউ বলতো খাইতে খাইতে ভুটকি হইছে, বেলুন, ভুটকি, মুটকি নাম ছাড়া কেউ কথাই বলতোনা।
আবার অনেকের ধারনা না শুধু বিশ্বাস যে সিজারিয়ান পেট কখনই কমে না, আমাকে তো অনেকেই বলতো জীবনেও কমবেনা একেতো সি- সেকশন তার ওপর আবার থাইরয়েড।
শুধু ধৈর্য্য ধরেছি আর চেষ্টা করেছি, আল্লাহর উপর বিশ্বাস ছিল যে আল্লাহ আমাকে শক্তি দিবে।
আলহামদুলিল্লাহ আমি লক্ষের খুব কাছে।
ডায়েট + ফ্রি হ্যান্ড এক্সারসাইজ + ইয়োগা + কাজের বুয়া বাদ
অক্টবরে ৮৬ কেজি
নভেম্বরে ৭৬ কেজি
ডিসেম্বরে ৬৭ কেজি
জানুয়ারি ৬২ কেজি
এখনো ১২ কেজি কমাতে হবে, ৫০ লক্ষ্য।
ইনশাল্লাহ পারবো।
সি-সেকশন আর থাইরয়েডের বোনরা ফ্রাস্টেটেড হইও না চেষ্টা করো ইনশাআল্লাহ হবে।

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
1

পাঠকের মতামতঃ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here