Aporajeeta Arpita

0
2267
Aporajeeta Arpita

#বদলে_যাওয়ার_গল্প#

পটভূমিঃ

আমি সারা জীবন মধ্যম ওজনের ই ছিলাম।কিন্তু বিয়ের ৪ বছরে আস্তে আস্তে ওজন বাড়লো ১২ কেজি। সেই ভাবে কখনই কেয়ার করিনি। অনেকেই বলেছে, কিন্তু গায়ে লাগাই নি। হঠাত একদিন অসুস্থ হয়ে যাওয়ায় ডাক্তার দেখালাম, ব্লাড সুগার, কোলেস্টেরল, বিপি, হরমোন, হিমোগ্লবিন সব এবনরমাল। এটা জুন মাসের কথা। ডাক্তার একগাদা ঔষধ দিল আর বলল ওজন কমাতে। গাদা গাদা ঔষধ খেতে খেতে বিরক্ত হয়ে গেলাম, উলটা পালটা ডায়েট করে অনেক কষ্টে ৬৫ থেকে ৬৩ হলাম। হতাশা বাড়লো, কোন কিছুই ঠিক মত হচ্ছিল না। এর মধ্যে রোজার ঈদে আমার জামাই (বিসিএস, এ এস পি)-ট্রেনিং থেকে আসল ৮ কেজি ওজন কমিয়ে। যেখানেই বেড়াতে যাই, সবাই বলে ‘আমাকে ওর পাশে আন্টি আন্টি লাগছে। আমার জামাই সার্কেল এ জয়েন করলে আমি নাকি আরো মোটা হব… ইত্যাদি ইত্যাদি…’ এই প্রথম কোন কথা গায়ে লাগলো। মনে হল, এই কথা যদি আমাকে আর শুনতে না হয় তবে আমাকে ওজন কমাতেই হবে। তখন কিভাবে কিভাবে যেন দেবযানী আপু আমাকে এই গ্রুপে এড করলো। শুরু হলো আমার ওজন কমানোর যুদ্ধ…🔫

পথচলাঃ

আগস্ট এর মাঝামাঝিতে শুরু হলো আমার যুদ্ধ, এই গ্রুপের সব পোস্ট, প্রশ্ন উত্তর পর্ব, ডক ফাইল, বদলে যাওয়ার গল্প গুলো পড়ে ডায়েট আর এক্সারসাইজ সম্পর্কে ধারনা নিলাম। ভাত, বাইরের সকল খাবার, মিস্টি, কোল্ড ড্রিংক সব বাদ দিলাম আর ফ্রি হ্যান্ড এক্সারসাইজ করে ৬৩-৬০ হলাম সেপ্টেম্বর এ। এর মধ্যে কুরবানীর ঈদ ও ছিল।

এরপর রাতুল দাদার চার্ট আর সাব্বির ভাইয়ের সাজেশন অনুযায়ী এক্সারসাইজ শুরু করলাম। অনেক চড়াই উতরাই, বাধা বিপত্তি, প্রতিবন্ধকতা পার হয়ে অবশেষে ৬০ থেকে ৫০ হলাম (১/১০/১৬ থেকে ৩১/০১/১৭). উচ্চতা ৫’১”💃

প্রতিবন্ধকতাঃ

আমার সবচেয়ে বড় প্রতিবন্ধকতা ছিল আমার অফিস টাইম (সকাল ৬টা- সন্ধ্যা ৬টা)। এর মধ্যে এক্সারসাইজের টাইম বের করা, সময় মতো খাওয়া, ঘুম, নিজের জন্য রান্না সব চেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ ছিল।

১. অফিসের কাজের জন্য সময় মতো খেতে পারিনি। দুই বেলার মিল এক সাথে খেতে হত। মাঝে মাঝে কোন কোন মিল বাদ যেত।

২. ইনসমনিয়ার কারনে ঘুমিয়েছি ৪ ঘন্টা।

৩. অফিস পার্টি ও বিয়ের দাওয়াত অংশ নিয়েছি (বাধ্যতামূলক)

ঢাল তলোয়ারঃ

আমি জীবনে কখনো কোন পরীক্ষায় ২য় হইনি, ওজন কমানো টাও ছিলো আমার জন্য একটা পরীক্ষার মতো। Do or Die Challenge. হয় আমাকে পারতে হবে নয় চিরতরে থেমে যেতে হবে। এত বাধার পরও যা আমাকে এই পর্যন্ত আসতে সাহায্য করেছে, তা হল:

১. প্রতিদিন ১-১.৫ ঘন্টা এক্সারসাইজ করেছি (সকাল ৪;৪৫ থেকে ৫;১৫, সন্ধ্যা ৬;৩০-৭;৩০)(অসুস্থতার মাঝেও বাদ দিইনি, কারন অফিসের কারনে মাঝে মাঝে মিস হত তাই)

২. সপ্তাহে ছুটির দুই দিন দুইবেলা ১.৫ ঘন্টা হেটেছি।

৩.বুয়ার সব কাজ নিয়ে করেছি।

৪. সব পার্টি তে আমি অনেক খাবার নিতাম প্লেটে, কিন্তু খেতাম কেবল সবজি আর সালাদ। বাকি খাবার রয়ে যেত, মানুষ ভাবতো আমি কত কিছু খেয়েছি😊

৪. আর সব চেয়ে যেটা বেশি ছিলো তা হল,নিজের উপর প্রচন্ড আত্মবিশ্বা্‌স, জেদ, অপরিসীম ইচ্ছাশক্তি, তীব্র মনোবল, একনিষ্ঠতা, দুর্বার প্রচেষ্টা আর নিজেকে দেওয়া কমিটমেন্ট।😊😊

কৃতজ্ঞতাঃ

আমার এ অর্জনে শুধু ধন্যবাদ দিলে কম হবে তবুও যাদের কথা না বললেই নয়-

১. আমাকে এই সুন্দর গ্রুপ টার সাথে পরিচিত হওয়ার সুযোগ করে দেবার জন্য দেবযানী আপু।

২. ক্যাথি আপু সহ সকল এডমিনদের সুন্দর এই গ্রুপ টা আমাদের উপহার দেবার জন্য।

৩. দি গ্রেট রাতুল দাদা- ডায়েট চার্ট আর শাসন এর জন্য (শাসন না করলে কিছু হয় না-এটা সত্যি)

৪. এক্সারসাইজ এক্সপার্ট সাব্বির ভাই (So nice man)

৫. সাজেদ ভাই, আরিফ ভাই, অনন্তা আপু, মুনমুন আপু সহ গ্রুপের সকল সদস্য ও তাদের প্রতিদিনের মোটিভেশনের জন্য।

শেষকথাঃ

#ওজন_কমবেই_পথচলা_চলবেই #
#সব দিক ব্যালেন্স করতে হয়, নিজের সাথে প্রতারনা কখনো নয়#
#Priority, Self commitment , Self confidence খুব জরুরী #
#আমার জন্য দোয়া করবেন, সবাই ভালো থাকবেন,সবার জন্য শুভকামনা#
#বি_ফিট_বি_হেলদি#

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
421

পাঠকের মতামতঃ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here