Afsana Hossain Riva

0
2260
Afsana Hossain Riva

পথ চলা শুরু ৯৬কেজি থেকে ভেবেছিলাম ৭০কেজি হওয়ার পর বিফোর আফটার দিব, কিন্তু অনেকেই অনুপ্রেরণা খোঁজেন তাই ভেবে দেখলাম দেই।এখন ওজন ৮০। অনেকে বলেন এইটুকু করে লাভ নাই, দ্রুত ওজন কমাতে হবে। এই জন্য কত কিছুই না করি আমরা। ক্রাশ ডায়েট থেকে শুরু করে খাওয়া দাওয়া বাদ দিয়ে শরীরের সাথে যুদ্ধ ঘোষনা করি। ফলশ্রুতিতে কি হয়? ওজন কিছুটা কমে আবার আগের জায়গায় ফিরে যাই।
যাই হোক আমি নিজেও অনেক কিছু করেছি। দারচিনি গুড়া থেকে শুরু করে সয়া প্রোটিন গিলেছি। সঠিক দিক নির্দেশনার জন্য পুষ্টিবিদের শরণাপন্ন হয়েছি, কিন্তু হায়! শুধু বিভ্রান্ত হয়েছি হয়ত কপাল খারাপ ছিল তাই। এক গাদা দামি মেডিসিন ধরিয়ে দিয়েছিল, যা আমার পক্ষে নিয়মিত নেয়া সম্ভব ছিলনা।
আগেই বলে নেই আমার বেবি হওয়ার পর আমার ওজন যা বেড়েছিল তা কিছুতেই কমছিলনা। মোটামুটি ১৬কেজি বেড়েছি। আমি বরাবরই খাওয়া কে যতটুকুন পারি নিয়ন্ত্রণ করে খেতাম। সকাল এ ২টা রুটি দুপুরে এক কাপ ভাত অথবা ১.৫ কাপ, সবজি আর এক পিছ মাছ, সন্ধায় ভাজাপড়া অথবা মিষ্টি নাস্তা এরপর দেখা যেত রাতে আর খেতামনা। এতে ওজন না কমলেও বাড়তোনা।এবার আসি আমার সোনালি দিনের সুচনার গল্প।এ বছরের এপ্রিল মাসে হঠাৎ প্রচন্ড ডায়রিয়া। কষট পাচ্ছিলাম আবার মনে মনে খুশি হচ্ছিলাম ওজন হয়ত কমবে কিছুটা। তার আগে স্কিনের ডাক্তারের কাছে গিয়ে জানতে পারি ওজন ৫কেজি কখন যেন কমে গেসে। ডায়রিয়া হওয়াতে কিছু খেতে পারতামনা তাই আরো এক কেজি কমলো।কিছুটা সুস্থ্য হয়ে ভাবলাম এখন এইটা ধরে না রাখলে আবার দ্রুত ওজন বেড়ে যাবে। ঠিক অই সময় এই গ্রুপে এডেড হই। গ্রুপ ফলো করা শুরু করলাম। গ্রুপের পোস্টগুলো পড়ে গ্রিন টি, পরিমান মত ভাত আর সবজি খেতাম আর প্রতি বেলায় অন্তত ১৫/২০মিনিট করে হাটাহাটি করেছি। পাশাপাশি রাতুল ভাইয়া কেও ইনবক্স করে রাখলাম। এমন করে আসলে নিজেকে প্রিপেয়ার করছিলাম যাতে রাতুল ভাইয়ের দেয়া চারট পাওয়ার পর যেন সেটা ঠিকমতো অনুসরণ করতে পারি।
আলহামদুলিল্লাহ বেশিদিন অপেক্ষা করতে হয়নি। একদিন ভাইয়াকে নক করলাম রিমাইন্ড করার জন্য উনি রিপ্লাই দিলেন রাতেই চারট দিয়ে দিবেন।
চারট পেয়েই ডায়েট অনুসরণ করার পাশাপাশি যা করেছিলাম তা হচ্ছে
১. রাতে তাড়াতাড়ি ঘুমানোর ও সকালে ঘুম থেকে আগে ওঠার অভ্যাস করলাম যেন সময় মত নাস্তা সাড়তে পারি আর ক্রস ট্রেইনার এ ১ঘন্টা দোউরাতে পারি।
২. ২লিটারের একটা পানির বোতল সাথে রাখলাম যেন সারাদিনে নিম্নে ৩লিটার পানি খেতে পারি।
৩. প্রতিবেলা খাওয়ার পর বসতামনা, হাল্কা পায়চারি করতাম। সারাদিন এক্টিভ থাকার চেষ্টা করতাম।
৪. কোনরকম ফাস্টফুড খাইনি, রিচফুড ও খাইনি।
হয়তো খুব বেশি কিছু পরিবর্তন হতে পারিনি, আমার আরো অনেক বেশি পথ পাড়ি দিতে হবে। আমার এপ্রিল থেকে জুলাই এই সময়ে মোট ১৮কেজি কমেছে। এখন আবার ধীরগতি হয়ে গেছে নানাকারনে নয়ত আরও কমে যেত।
পরিশেষ এ বলতে চাই রাতুল ভাইয়া ও গ্রুপের এডমিনগণ ও একটিভ সদস্যদের অনেক অনেক ধন্যবাদ জানাতে চাই আপনাদের ছাড়া এই অর্জন ছিল অসম্ভব। মহান আল্লাহ্ রাব্বুল আলামিন আপনাদের এই নি:স্বার্থ অবদানের জন্য উপযুক্ত প্রতিদান দিন আমিন।
বি: দ্র: ডায়েট চারট শেয়ার করা পসিবল না। এক একজনের চাহিদা এক এক রকম তাই রাতুল ভাইয়া শেয়ার করতে মানা করেন। কারো যদি প্রয়োজন হয় তবে গ্রুপের ডক ফাইলগুলি দেখুন অথবা রাতুলদাকে ইনবক্স করে রাখুন। অতএব ডায়েট চারট চেয়ে আমাকে লজ্জায় ফেলবেননা।

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
821

পাঠকের মতামতঃ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here