ব্যায়ামের পোষাক কেমন হওয়া উচিৎ?

0
5182

হালকা পোশাকই সবচেয়ে ভালো। তবে ধূসর, কালো, নীল, সাদা এই রংগুলোই ওয়ার্কআউটের জন্য ভালো হয়। পাতলা টি-শার্ট বা স্লিভলেস গেঞ্জি জিমের পোশাক হিসেবে বেশ উপযোগী। তবে মনে রাখবেন ব্যায়ামাগারে পরিশ্রমকালে আপনার শরীর থেকে প্রচুর পরিমাণে পানি বেরিয়ে যায়। সেক্ষেত্রে শুষে নেওয়ার ক্ষমতা আছে এমন কাপড়ের পোশাক পরা উচিত। তাছাড়া স্ট্রেচিং-এর ব্যাপারটাও মাথায় রাখতে হবে। আটসাট পোশাকে পরলে যখন আপনার বাইসেপ, ট্রাইসেপ স্ফীত হবে তখন আপনি অস্বস্তিবোধ করবেন। অন্যদিকে আপনাকে দেখাবেও খুব বেঢপ। সব চেয়ে ভালো শর্টস। শর্টস শুনেই নাক কুচকোবেন না। হাটু পর্যন্ত হাফপ্যান্ট অর্থাৎ সোজা বাংলায় শর্টস পরে অনেক ব্যায়াম আপনি সহজেই করতে পারবেন। তবে শর্টস ঢিলেঢালা হলেই ভালো হয়। একই সময়ে ট্রাউজারও পরতে পারেন।

কাপড় : জিম করার সময়ে কখনই ১০০ ভাগ সুতি কাপড় পরা উচিৎ না। কারণ সুতি কাপড় পরতে বেশ আরামদায়ক এবং মোলায়েম হয়ে থাকে যা ব্যায়ামের উপযোগী না। সুতি পোশাক শরীরকে ঘামতে দেয় না বা ঘামলে তা তাড়াতাড়ি শুষে নেয় এবং শুকায় দেরিতে। ঢিলেঢালা পোশাক জিমে জন্য পারফেক্ট অতিরিক্ত টাইট পোশাকও জিমের জন্য পারফেক্ট না। কেননা শারীরিক ব্যায়ামের সময়ে অতিরিক্ত টাইট পোশাকের কারণে নিঃশ্বাস নিতে সমস্যা হয়। এজন্য জিম করার সময়ে এই ধরনের পোশাক পরা থেকে বিরত থাকুন।

জুতা : অনেকের মত ব্যায়ামের জন্য জুতার তেমন গুরুত্ব নেই। সাধারণ একটা জুতা পরলেই চলে। কিন্তু ব্যায়ামের সময় ভালো ব্র্যান্ডের নরম কেডস পরা প্রয়োজন। কেননা শরীরের পুরো চাপ পড়ে পায়ের ওপর। তাই পায়ের ভারসাম্য যাতে ঠিক থাকে সে জন্য মোজা পরে নেওয়াও ভালো। নইলে পায়ের চামড়া ছিলে যেতে পারে। পাওয়ার ব্র্যান্ডের জুতা এ জন্য বেশ ভালো। মোজা যার পরেন তাদের ১০০ % সুতি কেনা উচিৎ।

জুয়েলারি : বর্তমানে নারী পুরুষ উভয়েই জুয়েলারি পরে থাকেন যা জিম করার সময়ে পরা উচিৎ না। কেননা শারীরিক ব্যায়াম একটি জটিল অনুশীলন প্রক্রিয়া যেটি করার সময়ে শরীরে ব্যবহার্য বিভিন্ন জুয়েলারি ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। তাই জিম করার সময়ে জুয়েলারি পরা থেকে বিরত থাকুন।

স্পোর্টিং ব্রা কেনো পড়বেন ? না পড়লে কি প্রব্লেম হবে ?

উপকারঃ স্পোটস্ ব্রা ব্যয়ামের জন্য বিশেষ ভাবে নকশাকৃত, ব্যয়ামকালে কিংবা ডান্সের সময় এটি ব্রেষ্টের অস্বস্তিবোধ, ব্যথা এবং ইনজুরির হাত থেকে রক্ষা করে। যারা ব্যায়াম করেন তাদের বিশেষ ধরনের স্পোর্টিং ব্রা ব্যবহার করা উচিত। জুম্বা (ডান্স), জগিং, রেজিস্টেন্স ওয়ার্ক অ্যাক্টিভিটিগুলোর প্রভাব যাতে ব্রেস্টের উপর না পড়ে তার জন্য দরকার একটা ভাল স্পোর্টস ব্রা। বাজারে দু’রকম স্পোর্টস ব্রা পাওয়া যায়। একটা যা স্ট্রেচ ফ্যাব্রিক দিয়ে বানানো। এতে চেস্ট কমপ্রেশন টেকিনিক ব্যবহার করা হয়। আর একটায় হালকা মোল্ডের কাপ ব্যবহার করা হয়। সাধারনত হাই ইনটেনসিটি স্পোর্টস ব্রা পরিধানে আপনারর ব্যয়াম অথবা খেলাধুলা করবার সময় ৮০% ঝাকি নিয়ন্ত্রণ করবে

যে ক্ষতি হবেঃ ব্যয়ামে সময় ব্রেষ্টের প্রবল উঠানামায় তার চামড়াকে এবং পেশীকলাকে প্রসারীত করে, ব্যয়ামকালে অস্বস্তিকর পরিস্থিতির শিকার হবেন। তাছাড়া ব্যয়ামের সময় স্তন পরিধেয় কাপড়ের সাথে ঘর্ষনের ফলে নিপলে ঘা এবং ফোসকা সৃষ্টি হয়ে অস্বস্তিবোধ হতে পারে।সেইপ নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

আন্ডারওয়ারঃ সবার বেলায় ১০০% সুতি কাপরের ভাল মানের পড়া উচিৎ। শুধু ব্যায়াম না এমনিতেও এই সবপোষাক সব সময় আরামদায়ক এবং ভাল মানের হওয়া উচিৎ । জিমের সময় প্রচুর ঘাম থেকে অস্থতিকর পরিস্থি সৃষ্টি হতে পারে ।
বি ফিট

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
4

পাঠকের মতামতঃ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here