তোকমার গুনাগুণ

0
5532

আমরা বেশিরভাগই তোকমার সাথে পরিচিত আছি। তোকমা অনেকভাবে খাওয়া যায় এবং এর উপকারিতা অনেক। পেটের পীড়া উপশম থেকে শুরু করে অনেকেই তোকমা দানার শরবত খেয়ে থাকেন। তাছাড়া, বিভিন্ন ফলের জুস ও ফালুদা তৈরিতে তোকমা দানা ব্যবহার করা হয়। এটি প্রচুর পুষ্টি ও মিনারেল সমৃদ্ধ।

তোকমা দানা ‘সালভিয়া হিসপানিকা’ নামেও পরিচিত। এর উৎপাদন বেশি হয় স্মেক্সিকোতে। প্রাচীন মায়ান এবং অ্যাজটেক্স সম্প্রদায় তোকমা দানার ব্যবহার প্রথম শুরু করে বলে জানা যায়। মেক্সিকো ছাড়াও, গুয়াতেমালা, আর্জেন্টিনা, বলিভিয়া, নিকারাগুয়া, অস্ট্রেলিয়া এবং ইকুয়েডরে ব্যাপকভাবে তোকমার চাষ হয়। ছোট ডিম্বাকৃতির নরম বীজটি বিভিন্ন রঙয়ের হয় যেমন, বাদামি, কালো, সাদা ইত্যাদি। তোকমা দানায় হাইড্রোফোলিক উপাদান রয়েছে, যার কারণে খুব সহজে পানি শোষণ করে নেয়। তোকমা দানা তাদের ওজনের চেয়ে বার গুণ বেশি পানি শোষণ করতে পারে।

আসুন জেনে নেই তোকমার গুনাগুণ –

১। পুষ্টিগুণ:

প্রতি ১০০ গ্রাম তোকমা দানায় পর্যাপ্ত পরিমাণে লৌহ, ক্যালসিয়াম, থিয়ামিন, ম্যাংগানিজ, দস্তা, ফসফরাস, ভিটামিন-বি, ফোলেইট এবং রিবোফ্ল্যাভিন রয়েছে। চিকিৎসা বিজ্ঞানীদের মতে, প্রতিদিনের ডায়েটে অল্প পরিমাণে তোকমা দানা খেতে পারেন। যা আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা এবং বিপাক প্রক্রিয়া বৃদ্ধি করবে।

২। হজম প্রক্রিয়া সম্পন্নঃ

তোকমা দানায় পর্যাপ্ত পরিমাণে আঁশ রয়েছে। প্রতি ১০০ গ্রাম তোকমা দানায় ৪০ গ্রাম খাদ্য আাঁশ পাওয়া যায়।আঁশ হজম প্রক্রিয়ায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। পেটের পীড়া, প্রদাহ এবং কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে এবং কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে।

৩। ওজন নিয়ন্ত্রণঃ

তোকমা দানা চমৎকার পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ খাবার। এতে শুধু আঁশই থাকে না, শরীরের শক্তিও সরবরাহ করে। এক মুঠো তোকমা দানা বাদাম, শুকনো ফলের সঙ্গে মিশ্রণ তৈরি করে খেলে দীর্ঘক্ষণ আপনাকে ক্ষুধামুক্ত রাখবে। যা ক্ষুধা দমন, অসময়ে ক্ষুধার যন্ত্রণা, অতিরিক্ত খাদ্যগ্রহণ নিয়ন্ত্রণ করে। ফলে শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণ হয়।

৪। ওমেগা–৩:

ওমেগা-৩ শরীরের জন্য খুব দরকারী একটি উপাদান। উদ্ভিদভিত্তিক ওমেগা অ্যাসিডের সবচেয়ে ভালো উৎস হচ্ছে তোকমা দানা।

৫। খনিজ পদার্থ এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট:

তোকমা দানায় প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি রয়েছে যা শরীরে শক্তি উৎপন্ন করে। আর এর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান প্রদাহ, ক্যানসার কোষ প্রতিরোধ এবং বার্ধক্য রোধে সহায়তা করে। এক চাপ তোকমা দানায় আমাদের শরীরের জন্য প্রতিদিনের দরকারি ৩০ শতাংশ ম্যাংগানিজ, ১৮ শতাংশ ক্যালসিয়াম সরবরাহ করে।

৬। রক্তে শর্করা ও কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ:

সাম্প্রতিক কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, তোকমা দানা রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ, শরীরের জন্য উপকারী কোলেস্টেরল উৎপন্ন করে এবং রক্তে চর্বির পরিমাণ কমায়। এটি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে, সুস্থ হার্ট এবং হাড় গঠনে সহায়তা করে।

বাদাম এবং উদ্ভিদ বীজে অ্যালার্জি তৈরি হয়, তাদের তোকমা দানা থেকেও অ্যালার্জি তৈরি হতে পারে। তাছাড়া, উচ্চ রক্তচাপের জন্য যারা ওষুধ খাচ্ছেন তারা নিয়মিত তোকমা দানা গ্রহণের পূর্বে চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া উচিত।

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
3

পাঠকের মতামতঃ