ইন্টারমিটেন্ট ফাস্টিং এবং এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

0
4757

আমাদের গ্রুপে ইদানীং লক্ষ্য করছি intermittent fasting খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। তাই এ প্রসঙ্গে কিছু কথা বলতে এসেছি আমার ক্ষুদ্র একাডেমিক জ্ঞান দিয়ে .. ভুল হলে আপনারা শুধরে দেবেন কেমন?? এক্সপার্ট রা আছেন ই সাহায্য করবার জন্য । লেখাটি এক্টু বড় তাই শুরুতেই বলে নিচ্ছি কস্ট হলেও যারা এই ডায়েট টি করছেন বা করতে যাচ্ছেন বা কিছু জানার ইচ্ছা আছে তারা কস্ট করে হলেও পরবেন।
আমাদের আগের ২-৩ টি পোস্ট এ intermittent fasting নিয়ে অনেক আলোচনা হয়েছে যেখানে বলা হয়েছে এর বেনিফিট কি কিংবা এটি কত এমেজিং ডায়েট.. কিন্ত কেউই এ ডায়েট টি করার ফলে কি কি সাইড এফেক্ট হতে পারে বা হচ্ছে, এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া কি হতে পারে তা নিয়ে আলোচনা করেন নি। তাই আজকে আমি এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নিয়ে আলোচনা করবো।
Intermittent fasting একটি এক্সট্রিম ওয়ে ডায়েটিং এর জন্য। মানুষজন শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরে দিনে কয়েকবার (মেজরিটি বলে ৩ বার) খাবার খেয়ে অভ্যস্ত । তাই আমরা হুট করে চাইলেই প্রাচীন গুহামানবদের মতন খাবার খেতে পারবো না আবার এটাও আশা করতে পারিনা যে everything is to be normal.
Intermittent fasting যারা করছেন তারা এখন এক্টু ডিফেন্সিভ মোডে চলে এলেন কি ঠিক বললাম ?ধীরে বৎস ধীরে। relax .. আমি মোটেও কাউকে কনভিন্স করছি না যে আপনারা কেউ intermittent fasting quit করেন। আমি শুধুমাত্র এর অন্য পিঠের সাথে আপনাদের পরিচিত করতে চাইছি যা আর কেউ বলেনি। no single approach works for everyone…

Benefits of intermittent fasting:
পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখানোর আগে এর কিছু পপুলার বেনিফিট দেখুন।
Insulin resistance কমাবে এবং type ।। ডায়বেটিক রিস্ক কমাবে
Rejuvenate s cells
Can help u live longer. Etc..
– মনে রাখবেন প্রত্যেক IF ডায়েটারেরা কিছুনা কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ফেস করেছে। এর মধ্যে কিছু কিছু লং টার্ম। কিন্ত প্রত্যেক IF beginner দের সেগুলো জানা জরুরী।

আরো আগে যাবার পুর্বে আমাকে একটি প্রশ্নের উত্তর দিন তো..
যেটা অবশ্যই আপনার মনে দীর্ঘ সময় ধরে ঘুরছে..
আসলেই কি intermittent fasting ওজন কমানোকে ত্বরান্বীত করে??
আমি কিন্ত বলিনি ওজন কমা intermittent fasting এর কোন বেনিফিট .. এবং তা এইজন্য –
এটা নির্ভর করে আপনি পুরো দিনে কতটুকু ক্যালোরী কনজিউম করছেন, যেটা ওজন কমানোর জন্য দরকার ( ঠিকমতন ক্যালরী বার্ন এবং কনজিউম হচ্ছে কিনা, )not when u eat. Intermittent fasting আপনার ডেইলী ক্যালোরী কনজিউম কাউন্ট কে রিডিউস করতে সাহায্য করে। বেশীর ভাগ IF method আপনাকে ছোট একটি ফিডিং উইন্ডো দেবে যেখানে আপনি আপনার সারাদিনের ক্যালোরী ইনটেক করবেন। এবং ঐ টুকু সময়ের মধ্যে বেশী খাওয়া টা খুব ডিফিকাল্ট। কারন আপনি খুব লিমিটেড সময় পাচ্ছেন খাওয়ার জন্য । IF শুরু করলে ক্যালোরী ইনটেক ৮ শতাংশ পর্যন্ত কমিয়ে আনা সম্ভব।
একটা কথা অবশ্যই মনে রাখবেন এটা আপনাকে ওজন কমাতে তখনই সাহায্য করবে যদি আপনি ক্যালোরী ডেফিসিট মেনটেইন করতে পারেন। **so eating one or two a day won’t help u to loose weight if u over eat.
Netherlands এর কিছু সংখ্যক রিসার্চার একটা স্টাডি করেন এটা বের করার জন্য যে IF করলে ওজন কমানোর ক্ষেত্রে তা কতটা কার্যকারী.. তারা এজন্য ২টি গ্রুপ বেছে নেন। এক দল IF করবে আর অন্য দল রেগুলার হেল্দী ডায়েট করবে( সকলের খাদ্যতালিকা এক, ক্যালোরী ও সমান) এবং রিসার্চার রা তাদের স্টাডি শেষ করার পর কোন ডিফারেন্স পাননি (in body fat and lean body mass )ঐ ২ গ্রুপের মধ্য।
যদিও IF এর কিছু বেনিফিট আছে (কারও কারও জন্য) কিন্ত এর অনেক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া ও আছে।
SIDE EFFECTS:
.. Being uncomfortably full after eating :
আমাদের বেশীর ভাগ মানুষ যারা প্রতিদিন কয়েকটি মিল নিয়ে অভ্যস্ত ( ৩-৫ টি মিল), যেটা সহজ হিসেব করে সারাদিনের মধ্য ছোট ছোট মিল ভাগ করে ডেইলী ক্যালরী কনজিউম করা। কিন্ত ছোট ফিল্ডিং উইন্ডো ( IF) তে আপনাকে একটা / দুটো বড় মিল নিতে হবে। এই বড় মিল গুলো নেবার পর পরই আপনার অসস্থি হতে থাকবে.. এমনকি কোস্টকাঠিন্য ও হতে পারে। এছাড়া ও রাতে যদি বড় কোন মিল নেয়া হয় তাহলে তা ঘুমের ব্যঘাত ঘটাতে পারে,বেশীর ভাগ সময় আপনি ক্ষুধার্ত থাকবেন,, যখন আপনার ফাস্টিং পিরিয়ড শেষ হবে আপনি বেশী খেয়ে ফেলবেন এবং এক্টু পর আবার খেতে হবে কারন খাওয়ার সময় খুব অল্প , এরপর আপনাকে আবার ফাস্টিং এ যেতে হবে। IF করলে আপনাকে জানতে হবে কিভাবে বড় মিল গুলো হ্যান্ডেল করবেন, এবং আপনাকে কমফোর্টেবল হতে হবে আপনার পাকস্থলী যেনো কিছু সময়ের জন্য stretched out হয়। আরও জেনে রাখবেন বড় মিল হজম করার জন্য বডিতে stress পরে।
অনেক IF ডায়েটার আছেন যারা খাবার নিয়ে obsessive হয়ে পরেন ফিডিং এবং ফাস্টিং পিরিয়ড এ। তারা সারাক্ষন খাবার নিয়ে ভাবেন যতক্ষন ফাস্টিং করছেন। তাদের অবশ্যই এই ডায়েট ছেড়ে দেয়া উচিত কারন এর ফলে আনহেল্দী ওয়েট লস হবে যা খুব তাড়াতাড়ি ফিরে আসে। আশ্চর্য জনক ভাবে আবার কেউ কেউ এই ডায়েট ফলো করেন যাতে food obsession কমাতে পারেন। তারা সারাদিনই ১ টি বা ২ টি মিল প্রিফার করেন।
যারা ওয়েট লুজ করতে চান তাদের অবশ্যই hunger craving কন্ট্রোল করতে হবে না হলে কিন্ত ওজন কমবে না। কিছু এমন ও আছেন যারা সারাদিনই ৬ টি মিল নেবার পরও ক্ষুধা অনুভব করেন। এবং ফাস্টিং আপনার সেই hunger craves কে আরও intense করে দিবে। যখন থেকে আপনি ফাস্টিং করবেন তখন থেকেই আপনি ক্ষুধা অনুভব করবেন।

চা কফির ওপর মাত্রাতিরিক্ত আসক্তি :
IF plan এ ডায়েটার রা চা কফি এলাউ করেন যাতে ক্ষুধা অনুভব না করেন এবং এনার্জী পাবেন এরকম মনে করেন। কিন্ত মাত্রাতিরিক্ত চা, কফি কিন্ত আপনাকে ক্যাফেইন আসক্ত করে ফেলবে। আমরা জানি মাত্রাতিরিক্ত ক্যাফেইন ঘুমের ক্ষতি করে,stress , anxiety বাড়ায় যার ফলে ওয়েট আবার গেইন হয়।

Reduces athletic performance:
ফাস্টিং করার সময় moderate training is ok.. কিন্ত intense workout like power lifting, high intensity interval training করলে আপনার ক্ষতি হতে পারে। সেনেগাল এর কিছু রিসার্চার স্টাডি করে দেখেছেন ফাস্টিং করলে এথলেটদের পারফরমেন্স কিছুটা হ্রাস হয় । বিশেষ করে রমজান এর সময় ।

Heart burn:
Intermittent fasting করলে বহু মানুষের বুক জ্বলা ( heart burn) সমস্যা দেখা দেয় । কিছু কিছু নিজে নিজেই উপসম হয় ৫-৬ সপ্তাহের মধ্যে। কিন্ত যদি এই সময়ের মধ্যে ঠিক না হয় তাহলে অতি সত্তর ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে হবে। এই বুক জ্বলার সমস্যাটি হয় কারন আপনার শরীর আপনার পুরনো অভ্যাসের সাথে মানানসই। এবং শরীর সেই পুরোনো অভ্যাস ধরে রাখতে চায়।

Headache:
ফাস্টিং এর সময় এটা সবচেয়ে common একটা কারন। ম্যাক্সিমাম মানুষ অভিযোগ করেন সবসময় একটা mild headache এর.. কিছু ক্ষেত্রে পর্যাপ্ত পরিমানে পানি খেলে এ সমস্যাটি কমে যায় ।

Negativity Affects pregnant women:
রমজানের সময় অনেক গর্ভবতী মায়েরা রোজা রেখে থাকেন । ধর্মীয় দৃষ্টিভঙ্গিতে এমনকি কখনো বৈজ্ঞানিক ভাবেই দেখা গেছে এতে মায়ের বা অনাগত সন্তানের কোন ক্ষতি হয় না। কিন্ত সবিরাম উপবাস ( intermittent fasting) গর্ভবতী মায়েদের করতে নিষেধ করা হয় কারন এখানে কোন ধর্মীয় অনুশাসন নেই তাই শুধু শুধু মা এবং অনাগত সন্তান কে ক্ষুধার্ত রাখার কোন দরকারই নেই।

Frequent diarrhea:
অনেক IF ডায়েটারদের কিছুদিন পর পর ডায়রিয়া হবার অভিগ্যতা রয়েছে। কিন্ত এটা কতটুকু মারাত্মক আঁকার এর হবে বা হতে পারে সেটা নির্ভর করে কতদিন ধরে আপনি fasting করছেন। দীর্ঘদিন যাবত ফাস্টিং করলে explosive diarrhea হতে পারে। এটা হয় শরীরে fluid intake বেশী হবার জন্য ( বেশী বেশী চা, কফি পান করার জন্য)

Negatively affects women’s hormone:
কিছু সংখক মহিলা আছেন যারা IF করার সময় অভিযোগ করেন সময় মতন মাসিক না হওয়া(missed period),মেটাবলিক ডিসটারবেন্স,সময়ের আগেই মেনোপজ হয়ে যাওয়া ( early onset menopause) ইত্যাদি। মেয়েদের reproductive hormones অনেক বেশী সেনসিটিভ.. তাই দীর্ঘ সময় খাবার না খেয়ে থাকলে ঐ hormones গুলোয় লংটার্ম এফেক্ট পরে।

Low energy:
বেশীর ভাগ মানুষ যারা IF try করেছে বা করছে তারা low energy এর অভিযোগ করে থাকে। এবং এটা একটা জেনুইন কনসার্ন যে ফাস্টিং এ এনার্জী লো হবে এবং দূর্বলতা আসবে। যেটা আপনাকে ঠিকমতন ব্যয়াম করতে দেবেনা এমনকি ফিজিক্যালি একটিভ ও থাকতে দেবেনা।

সার কথা:
আমি আশা করবো এই আর্টিক্যাল টি আপনাকে কিছুটা হলেও আলো দেখাতে পারবে intermittent fasting challenge নিতে চাইলে। এখন আপনি আরও প্রিপেয়ার্ড হতে পারবেন যদি এই ডায়েট টি করতে চান। জেনে রাখুন এখানে যে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ার কথা বলা হয়েছে সেটা IF এর যে মেথডগুলো আছে সবগুলো বা সবার ক্ষেত্রে এক নয় । তাই আপনারা এসব সমস্যাতে পরতেও পারেন আবার নাও পারেন। ডিপেন্ড করবে আপনি কোন পদ্ধতিতে যাবেন ।
সব ডায়েট সবার জন্য না। যদি দেখেন intermittent fasting আপনার উপর কাজ করছেনা বা আপনি উপরোক্ত সমস্যা গুলোতে ভুগছেন তাহলে এই ডায়েট আপনার জন্য নয় এবং এটা ফলো করবার ও কোন দরকার নেই। আপনিও অবশ্যই ওজন কমাতে পারবেন এমনকি দিনে ৫/৬ বার করে খেয়ে ১২০০-১৫০০ ক্যালোরীর সুষম ডায়েট চার্ট ফলো করে।
তো আপনি তৈরী তো??
বি হ্যাপী
বি স্লীম
বি ফিট..
Dr. Mahshina Khan Moonmun
Maxillofacial surgeon ( DU), PGT ( OMFS, DDC),
MPH ( epidemiology) ,
Diploma at Food and health nutrition ( Stanford university, California,USA)

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
2

পাঠকের মতামতঃ